Sunday, 19 November 2017

 

ভেটেরিনারি ইন্টার্নশীপ ভাতা ও কিছু কথা

নুপুর ধর:বাংলাদেশে ভেটেরিনারি সায়েন্স শিক্ষা শুরুর ইতিহাস অনেক আগের। ব্রিটিশ শাসনাধীন থাকা অবস্থায় ১৯৪৭ সালে কুমিল্লা থেকে ভেটেরিনারি শিক্ষার ভিত প্রতিষ্টিত হয়। এরপর বিভিন্ন বাধা বিপত্তি উতরে তৎকালীন পাকিস্তান আমলে ১৯৬১ সালে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (তৎকালীন ইস্ট পাকিস্তান এগ্রিকালচারাল ইউনিভার্সিটি) পূর্নাঙ্গ অনুষদ হিসেবে ভেটেরিনারি সায়েন্স অনুষদ যাত্রা করে।

এরপর স্বাধীনতাপরবর্তী সময়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ অন্যান্য সরকারও বিভিন্ন সময়ে দেশের জনসাধারনের কল্যাণের লক্ষ্যে এবং প্রাণিসম্পদ সেক্টর থেকে প্রবৃদ্ধি অর্জনে ভেটেরিনারি সায়েন্স এবং পশুপালন অনুষদ একত্র করার পদক্ষেপ গ্রহন করে যদিও তা ব্যর্থ হয়। এর প্রেক্ষিতে সময়োপযোগী ভেটেরিনারি গ্র্যাজুয়েট তৈরির উদ্দেশ্যে সিলেট ও চট্টগ্রামে সরকারি ভেটেরিনারি কলেজে চারবছর একাডেমিক ও এক বছর ইন্টার্নশীপ সহ মোট পাঁচ বছর মেয়াদী ডিভিএম ডিগ্রি চালু করে।

পরবর্তীতে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, শেরে -বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়,  হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ও ছয় মাস ইন্টার্নশীপ চালু করে। এসময় ইন্টার্নশীপরত অবস্থায় শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাসিক  পাঁচহাজার থেকে সর্বোচ্চ দশহাজার টাকা প্রদান করা হয়।  অথচ ইন্টার্নশীপে ভেটেরিনারি শিক্ষার্থীদের ঢাকা শহরের জাতীয় চিড়িয়াখানা, সেন্ট্রাল ডেইরি ফার্ম, বিএলআরআই, এলআরআই, স্লটারহাউস, সেন্ট্রাল ভেটেরিনারি হসপিটাল, বগুড়াস্থ আরডিএ, গ্রাম উন্নয়ন কেন্দ্র, সিরাজগঞ্জ ও পাবনার বিভিন্ন মিল্ক হাব, মিল্কভিটা, বায়োল্যাব, বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক, বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা ভেটেরিনারি হাসপাতাল সমূহে অংশগ্রহণ করে চিকিৎসা ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ক প্রশিক্ষণ গ্রহন করতে হয়।

বর্তমান প্রদেয় ভাতা চাহিদার তুলনায় মোটেও মানানসই নয়। দেশের বিভিন্ন বিভাগীয় ও জেলা শহরে ইন্টার্নশীপ কেন্দ্র  থাকে বিধায় প্রদেয় বর্তমান ভাতায় চলা কোনোভাবেই সম্ভব নয়। এদিকে বাংলাদেশ ভেটেরিনারি কাউন্সিল অর্ডিন্যান্স অনুযায়ী ইন্টার্নশীপরত একজন ভেটেরিনারি শিক্ষার্থী ভেটেরিনারি সার্জনের (বিসিএস ক্যাডার) বেসিকের সমান ভাতা পাবেন ।

দেশের বর্তমান আর্থসামাজিক অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) সমন্বিত উদ্যোগের মাধ্যমে ইন্টার্নশীপরত ভেটেরিনারি গ্র্যাজুয়েটদের মাসিক ভাতা নূন্যতম ২০,০০০/= টাকা প্রদানের ব্যবস্থা করা জরুরি বলে মনে করেন ইন্টার্নশীপরত ভেটেরিনারি গ্র্যাজুয়েটরা ।
===================
নুপুর ধর
ইন্টার্ন ভেট, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়