Tuesday, 12 December 2017

 

মুরগীর লিভার (কলিজা): একটি গুরুত্বপূর্ণ্ অঙ্গ

কৃষিবিদ রুহুল আমিন মন্ডল:সুস্হ মুরগীর জন্য সুস্হ লিভার অপরিহার্য্। মুরগীর ক্ষেত্রে লিভারকে সেন্ট্রাল ল্যাবরেটরি বলা যায়, কারণ শরীরবৃত্তীয় ৪০ টিরও অধিক বিক্রিয়া লিভারের সাথে সম্পর্ক্ যুক্ত ।লিভার ভাল থাকলে সমস্ত শরীরের অন্যান্য অঙ্গসমূহও ভাল থাকে। তাই কোন রোগ নির্ণয়ের জন্য মুরগীর পোস্টমরটেমের পরই যে অঙ্গ দেখতে হয়, তা হল লিভার। অনেক ইনফেকসাস ও টক্সিক রোগের লক্ষণ প্রথমে লিভারেই দেখা যায়।

লিভারের এনাটমি:
লিভার হৃৎপিন্ডের কিছুটা পিছনে এবং নিচে অবস্থান করে।লিভার ২টি লোবে বিভক্ত যথা: ডান লোব ও বাম লোব। ডান লোব তুলনামূলকভাবে বাম লোবের চেয়ে আকারে বড়। ডান লোবের সাথে পিত্তথলি যুক্ত থাকে।সাধারনত লিভার ব্রাউন বা চকলেট রংয়ের হয়ে থাকে। একটি প্রাপ্ত বয়স্ক লেয়ার মুরগীর লিভারের ওজন ৫০-৭০ গ্রাম।

লিভারের কাজ:
মুরগীর লিভার অনেক গুরুত্বপূর্ণ্ কাজ সম্পাদন করে । নিম্নে মুরগীর লিভারের কাজ সমূহ লিপিবদ্ধ করা হল:

১) পিত্তরস নিঃসরণ: লিভার হলুদাভ সবুজ রংয়ের রস নিঃসরণ করে যা পিত্তরস নামে পরিচিত । এই পিত্তরস পিত্তথলিতে জমা থাকে যা ফ্যাটকে হজম করে ফ্যাটি এসিড এবং গ্লিসারল তৈরি করে। সহজভাবে বলতে গেলে পিত্তরস ফ্যাট হজম করার জন্য দুইটি গুরুত্বপূর্ণ্ কাজ করে ।
প্রথমত: ফ্যাট কণাকে ভেঙ্গে ছোট ছোট কণায় রুপান্তরিত করে।
দ্বিতীয়ত: ফ্যাটি এসিড ও মনোগ্লিসারাইডকে ক্ষুদ্রান্ত থেকে শোষণ করে রক্তরসে পৌঁছে দেয়।
২) মেটাবলিজম:লিভার কার্বহাইড্রেড, লিপিড ও প্রোটিন মেটাবলিজমে গুরুত্বপূর্ণ্ ভূমিকা পালন করে।
৩) ভিটামিন সঞ্চয়:লিভার ভিটামিন সঞ্চয় করে রাখার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ্ অঙ্গ। ভিটামিন-এ, ভিটামিন-ডি ও ভিটামিন বি১২ জমা করে রাখে।
৪) আয়রণ সঞ্চয়:লিভারে আয়রণ ফেরিটিন হিসেবে সঞ্চিত থাকে।
৫) রক্ত জমাটকরণ:রক্ত জমাট বাধার জন্য যে সমস্ত উপাদান দরকার তার বেশ কয়েকটি লিভারে উৎপন্ন হয়। যেমন: ফ্রাইবিনোজেন, প্রোথম্বিন, ফ্যাক্টর-৭।
৬) রক্তশূণ্যতা নিয়ন্ত্রন:লোহিত কণিকা তৈরি হওয়ার জন্য ভিটামিন বি১২ ও আয়রণ অত্যন্ত প্রয়োজনীয় উপাদান। লিভার সেগুলো সরবরাহ করে রক্তশূণ্যতা রোধ করে।
৭) হরমোন সংশ্লেষণ:সাধারনত ষ্টেরয়েড হরমোন আংশিকভাবে লিভারে সংশ্লেষিত হয় ও পিত্তরসে নিঃসৃত হয়।ফলে লিভার ক্ষতিগ্রস্থ হলে হরমোনের অসামঞ্জস্যতা তৈরি হয়।
৮) বিষাক্তবস্তু অপসারণ:লিভারকে বলা হয় ডিটক্সিফাইং অঙ্গ।শরীরের দৈনন্দিন জৈবিক কার্যকালাপের মাধ্যমে যেসব বিষাক্ত বস্তুসমূহ তৈরি হয়, লিভার সেগুলোকে অবিষাক্ত পদার্থে রুপান্তরিত করে কিডনীর মাধ্যমে বের করে দেয়।
৯) রোগপ্রতিরোধ:কিছু লিভার কোষ গ্লোবিউলিন তৈরি করে, যা শরীরের রোগ প্রতিরোধের সাথে সম্পর্ক্ যুক্ত।
১০) তাৎক্ষণিক শক্তি সরবরাহ:লিভারে গ্লুকোজ, গ্লাইকোজেন হিসেবে সঞ্চিত থাকে।যদি রক্তে হঠাৎ করে গ্লুকোজের পরিমান কমে যায় তাহলে লিভারে সঞ্চিত গ্লাইকোজেনকে গ্লুকোজে রুপান্তরিত করে রক্তে সরবরাহ করে, একে গ্লাইকোজেনোলাইসিস বলে।

লিভারকে সুস্থ রাখার উপায়ঃ
যেহেতু লিভার খুবই জটিল ও গুরুত্বপূর্ণ্ কাজ সম্পাদন করে সেহেতু লিভার সুস্থ ও সবল রাখা একান্ত জরুরী। লিভারকে সুস্থ ও সবল রাখার জন্য বিভিন্ন ধরনের লিভার টনিক উপাদান রয়েছে। নিম্নে একটি আদর্শ্ লিভার টনিকের উপাদানের নাম ও কাজ উল্লেখ করা হলোঃ

উপাদান কাজ
কোলিন লিভার থেকে ফ্যাট দূর করে
সরবিটল পিত্তরস নিঃসরণের পরিমান বাড়িয়ে দেয়
বায়োটিন ফ্যাটকে যথাযথ মাত্রায় ব্যবহার করতে সাহায্য করে।
ভিটামিন বি ১২ ক্ষতিগ্রস্থ লিভার কোষকে পুনরায় প্রতিস্থাপিত করে।
মিথাইল ডোনার ক্ষতিগ্রস্থ লিভার কোষকে পুনরায় প্রতিস্থাপিত করে।
ভিটামিন ই ও সেলিনিয়াম লিভারে যেসব মুক্ত রেডিক্যাল তৈরি হয় সেগুলোকে নিষ্কিয় করে দেয়।
জৈব এসিড, HSCAS,MOS ফ্যঙ্গাস যেসব মাইকোটক্সিন তৈরি করে তাদের শোষন করে নিষ্কিয় করে দেয়

লিভারের রোগসমূহঃ
লিভার যেহেতু খুবই স্পর্শ্কাতর অঙ্গ সেহেতু যেকোন রোগ খুব সহজেই লিভারকে অক্রান্ত করে।এমন অনেক রোগ আছে যাদের বাহ্যিক লক্ষণ প্রকাশ পাওয়ার আগেই লিভারে লক্ষণ প্রকাশ পায়।সে জন্য অনেক রোগ নির্ণ্য় করার জন্য প্রথম লিভারকে দেখা হয়।

লিভারকে আক্রান্ত করে এমন কিছু গুরুত্বপূর্ণ্ রোগের তুলনামূলক লক্ষণসমূহ চিত্র সহকারে নিম্নে দেয়া হলোঃ

রোগের নাম লক্ষণসমূহ লিভারের চিত্র
সালমোনেলা 

  •  লিভার বড় হয়ে যায়

  •  বোঞ্জ কালার হয়

  •  ধূসর-সাদা রংয়ের নেক্রোটিক ফোকাই দেখা যায়  

ফাউল কলেরা   •  সাদা রংয়ের অসংখ্য নেক্রোটিক ফোকাই দেখা যায়    
ই. কলাই
অথবা
সি আর ডি + ই.কলাই
  •  লিভারের উপর সাদা পাতলা ফাইব্রিনাস পর্দা পাওয়া যায়
এভিয়ান লিউকোসিস অথবা মারেক্স

  •  লিভার গ্রেইস কালার হয়

  •  বড় লিভার সাথে টিউমার পাওয়া যায়    

 

ফ্যাটি লিভার সিন্ড্রম

  •  হলদে এবং নরম লিভার

  •  লিভারের উপর জমাটবদ্ধ রক্ত পাওয়া যায়    

=================
লেখক পরিচিতি:-
সিনিয়র ফার্ম ম্যানেজার,
নারিশ পোল্ট্রি এন্ড হ্যাচারী লিঃ,
ইমেইল:
মোবাইলঃ ০১৯১৯-৮৪১৮৭৩