Sunday, 19 November 2017

 

"৩৪ বছর পেরিয়ে বন্ধুত্ব অবিচল"

নিজস্ব প্রতিবেদক, এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:"৩৪ বছর পেরিয়ে বন্ধুত্ব অবিচল" শিরোনামে আর বর্নীল অনূভূতি নিয়ে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান উদযাপন করলো শেকৃবি’র ৪৩ তম ব্যাচের সাবেক শিক্ষার্থিরা। ২৫শে ডিসেম্বর রবিবার রাজধানী ঢাকার অদূরে সাভারের মধুমতি মডেল টাউনের রাজমহল রিসোর্টে জমজমাট পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন দেশ-বিদেশের প্রায় অধিকাংশ সহপাঠী এবং তাদের পরিবার পরিজনরা।

দিনব্যাপি আয়োজিত অনুষ্ঠানে ছিল নানা আয়োজন। সুদূর অষ্ট্রেলিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য সহ দেশে বিদেশের নানা স্থান খেকে পরিবারের সকলে মিলে উপভোগ করলেন একটি সুন্দর দিন। কৃষিবিদ জনাব কামরুজ্জামান কায়সারের পরিচালনায় সকলের পরিচিতি পর্ব এবং মধুর স্মৃতি রোমন্থন ছিল খুবই উপভোগ্য। বছরের একটি দিনে এমন একটি অনুষ্ঠানের জন্য সবসময় তারা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকেন। Get together হলেও মনে হয় শেকৃবি’র সবুজ চত্বরে পড়ে আছি এমন অনুভূতির কথা জানালেন অনেকে। End of the day we are friend এটিই তাদের কাছে মূল বিষয় সেলক্ষে তারা সব সময় এক সাথে হওয়ার চেষ্টা করে থাকেন।

অনুষ্ঠানে আগতরা তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে বন্ধুত্বের অানন্দ ভাগাভাগি করেন। নিবিড় যোগাযোগের মাধ্যমে এ মিলন মেলা যেন আগামীতে অব্যাহত থাকে সেটি কামনা করে সকলে। সবাই মিলে যাতে ভাল থাকতে পারেন সেটিই মনে করেন অনুষ্ঠানে আগতরা।

কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশন বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় মহাসচিব নির্বাচিত হওয়ায় অনুষ্ঠানে সহপাঠী বন্ধুরা কৃষিবিদ জনাব খায়রুল আলম (প্রিন্স) কে ভালবাসায় সিক্ত করেন। অনুষ্ঠানে সতীর্থরা তাদের প্রয়াত বন্ধৃ দীপু, বাবলু, মোজাম্মেল, সাগর, দোলনের কথা গভীরভাবে স্মরণ করেন এবং তাদের রূহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন কৃষিবিদ জনাব আক্কাস মাহমুদ শাহীন।

পরে জমজমাট আয়োজনের মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠিত র‌্যাফেল ড্র’র প্রথম পুরস্কারটি পান কৃষিবিদ জনাব কামরুজ্জামান কায়সার। সবশেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

আয়োজকরা জানান তাদের ব্যাচের একটি অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো বছরের ২৫ ডিসেম্বর তারা সকলেই একত্রিত হওয়ার চেষ্টা করে থাকেন। এমন একটি দিন যেন প্রতিবছরই আনন্দ সহকারে সকলে মিলে উদযাপন করতে পারেন সেটি কামনা সকলের।