Sunday, 19 November 2017

 

রাবি ক্রপ সায়েন্স বিভাগের শিক্ষকদের কর্মবিরতি পালন

এস.এম.আল-আমিন,রাবি সংবাদদাতা: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ক্রপ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি (সিএসটি) বিভাগের সভাপতির পদচ্যুতির দাবীতে বুধবার প্রথম দিনের মত প্রতীকী কর্মবিরতি কর্মসূচি পালন করেছে বিভাগের দুই-তৃতীয়াংশের অধিক শিক্ষকবৃন্দ।

আন্দোলনরত শিক্ষক সূত্রে জানা গেছে, সিএসটি বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোসলেহ্ উদ্দিন তার সভাপতির ক্ষমতা অপব্যবহার করে জোরপূর্বক নিজ ডিসিপ্লিনের বাহিরে বিভিন্ন কোর্সে নিজেকে অন্তর্ভুক্ত করেছেন এবং তার পছন্দের কিছু স্টুডেন্ট ব্যতীত অন্যান্যদের ইচ্ছাকৃতভাবে কম নম্বর দেন। যার কারনে তার মুল্যায়িত প্রায় অর্ধেক উত্তরপত্র ৩য় পরীক্ষণ হয়। এছাড়াও আর্থিক অস্বচ্ছতা, শিক্ষকদের সাথে দুরব্যবহার-অসদাচরণের অভিযোগও করেন শিক্ষকগণ। আর এসব অভিযোগের ভিত্তিতেই বিভাগের সভাপতির পদচ্যুতির দাবীতে শিক্ষকগণ আল্টিমেটাম সহ প্রতীকী কর্মবিরতি কর্মসূচি দিয়েছেন। এদিন কর্মসূচি চলাকালে বিভাগে কোন ক্লাশ অনুষ্ঠিত হয়নি।

এসব অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে মতিহার হল প্রভোস্ট ও ক্রপ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি বিভাগের আন্দোলনরত শিক্ষক প্রফেসর ড. মুহা. আলী আসগর বলেন, আমরা বিভাগের দুই-তৃতীয়াংশের অধিক শিক্ষকগন বর্তমান সভাপতির পদচ্যুতির দাবি জানিয়ে রাবি প্রশাসনকে চিঠি দিয়েছি। দ্রুততার সাথে তিনি পদচ্যুতি হবেন বলে আশা করি।

ক্রপ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি বিভাগের শিক্ষক প্রফেসর ড. খাইরুল ইসলাম এ বিষয়ে বলেন, আগামি ২ তারিখ দুপুর ১২ ঘটিকার আগে উনি (বর্তমান সভাপতি) পদত্যাগ করলে বিভাগের আগের স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসবে। অন্যথায় ২ তারিখের পর আলোচনা সাপেক্ষে বৃহত্তর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। এ কর্মসূচি চলার জন্য শিক্ষার্থীদের সামান্য পরিমানে ক্লাশের ঘাটতি হলেও আমরা তা অতিরিক্ত সময় দিয়ে পরবর্তীতে সমাধান করে দিব।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত সিএসটি বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মো. মোসলেহ্ উদ্দীন'র সাথে মুঠোফোনে (০১৭৪৩৫৫৫৯৯১) কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।