Sunday, 19 November 2017

 

জাপানের কাগাওয়ায় বাংলাদেশিদের চলছে বিজয়ের ৪৫ বছর পূর্তি উদযাপন

তাজুল ইসলাম চৌধুরী তুহিন, কাগাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়, জাপান থেকে:“ও আমার দেশের মাটি-তোমার পাড়ে ঠেকাই মাথা”-প্রবাস জীবনের ব্যস্ত দিন শেষে প্রিয় মা, মাটি আর পরিচিত মুখগুলির দৃশ্যপটই যেন বারবার দোলা দেয়, আর মনে করিয়ে দেয় লাল সবুজের পতাকাই আমাদের ঠিকানা। লাল সবুজের এই পতাকাই নতুন প্রাণের শিহরন জাগায়, মনকে আন্দোলিত করে আর নতুন কিছু করার প্রেরণা যোগায়। প্রবাসে থাকলে এই উপলব্ধিগুলো একটু বেশিই জাগ্রত হয়। প্রবাস জীবনের শত ব্যস্ততার মাঝেও দেশের জন্য, পতাকার জন্য কিছু করতে যেন মন উচিঁয়ে থাকে।

১৬ ডিসেম্বর ছিল প্রিয় মাতৃভূমির বিজয়ের ৪৫ বছর পূর্তি। দেশের মানুষের মত মনটা উচিঁয়ে ছিল কিছু করার। প্রতিবারের ন্যায় এবারও লাখ শহীদদের স্মরণে আমরা দেশের পতাকা নিয়ে দাঁড়িয়ে গেলাম কাগাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাফেটারিয়ার সামনে। জাপানের শিক্ষার্থীরা দেখল প্রিয় বাংলাদেশকে, কেউ কেউ আবার আগ্রহী হয়ে আমাদের সাথে ছবি ও উঠাল আর জানল বাংলাদেশকে। আমরা ও দেশের পতাকাকে বুকে ধারন করে ছবি উঠালাম।

তবে দিনটি খোলার দিন থাকায় সকল বাংলাদেশিরা অংশগ্রহন করতে পারলো না। তাই বাংলাদেশ কমিউনিটির সকলের অংশগ্রহন নিশ্চিতে  ক্রীড়া প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিজয় দিবস উদ্যাপনের সিদ্ধান্ত গৃহিত হল। যার মধ্যে আছে ছেলেদের ব্যাডমিন্টন (একক ও দ্বৈত), টেবিল টেনিস এবং কার্ড। আর মেয়েদের ব্যাডমিন্টন, লুডু  এবং কার্ড ইত্যাদি। আর প্রীতি ক্রিকেট খেলার আয়োজনও থাকছে ।

২১ ডিসেম্বর বুধবার কাগাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের জিমনেসিয়ামে (সন্ধ্যা ৭ টায়) বিজয় উৎসবের উদ্ভোধন করেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভত কাগাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ড. মোস্তফা জামাল। আগামীকাল ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬ টায় প্রতিযোগিতার ফাইনাল ও পুরস্কার বিতরণী  অনুষ্ঠানের আয়োজনের কথা রয়েছে । ইতিমধ্যে বিজয়ের উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে কাগাওয়ায়  আর সেই সাথে কোন খেলায় কে হবে চ্যাম্পিয়ন  তা নিয়ে শুরু হয়ে গেছে ঠান্ডা লড়াই। ডিসেম্বর মাসের অর্ধেক সময় জুড়ে জাপানের কাগাওয়ার বাংলাদেশিরা পার করল খেলাধুলা আর এ প্রাণ আমার বিজয়ের বাংলাদেশের আনন্দে নিয়ে।
============================
তাজুল ইসলাম চৌধুরী তুহিন
পিএইচডি শিক্ষার্থী, কাগাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়, জাপান এবং
সহকারী অধ্যাপক, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা
ই-মেইল