Saturday, 16 December 2017

 

KIB’র পিকনিক’২০১৭-চমৎকার একটি দিন পার করলেন কৃষিবিদরা

নুপুর ধর:সকাল থেকেই সাজসাজ রব গন্তব্য সাভারের বিকেএসপি।কৃষিবিদদের পিকনিক বলে কথা। শনিবার ২১ জানুয়ারি সকাল ৯:.৩০ থেকেই সাভারের জিরানীর বিকেএসপি ক্যাম্পাসটি কৃষিবিদ ও তাদের পরিবার পরিজনে মূখরিত হয়ে উঠে।যান্ত্রিক জীবন ও কর্মব্যস্ততার মাঝে সবাই হারিয়ে গেলেন সবুজের ছোঁয়ায়। কেআইবি বার্ষিক বনভোজনের দিনটি অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণ নানা আয়োজন বর্ণিল হয়ে উঠে।

সকাল ১০টায় কৃষিবিদদের ছেলেমেয়েদের নানা খেলাধূলার ইভেন্টে বিকেএসপি’র রানিং ট্র্যাকটি বেশ সরগরম হয়ে উঠে। বিচারকদের ব্যস্ততা ছিল চোখে পড়ার মতো। শুরুতেই ছেলেদের এলিফ্যান্ট ওয়াক প্রতিযোগিতা অনুষ্টিত হয় এবং সবাইকে পিছনে ফেলে তাহমিদ প্রথম স্থান অধিকার করে, দ্বিতীয় হয় রুদ্র এবং তৃতীয় হয় রাফিদ। এরপর মেয়েদের ডাক ওয়াকে প্রথম হয় আজমী, দ্বিতীয় তণিকা এবং রানিয়া তৃতীয় স্থান অর্জন করে। পরবর্তীতে অনুর্ধ ক্লাস এইট পর্যন্ত মেয়েদের মার্বেল দৌড়ে মালিহা প্রথম, রিফা দ্বিতীয় এবং অরিন তৃতীয় স্থান অধিকার করে। এরপর ক্লাস নাইন পর্যন্ত মেয়েদের মার্বেল দৌড়ে হৃদিতা প্রথম, রুপকথা দ্বিতীয় এবং নাফিসা তৃতীয় স্থান অধিকার করে।

খেলা চলাকালে কথা হলো কেআইবি মেট্রোপলিটন কার্যনির্বাহী কমিটি'র সাধারন সম্পাদক ড. তাসদিকুর রহমান সনেট পিকনিক সম্পর্কে এগ্রিলাইফ২৪. ডটকমকে বলেন,"সত্যিই পরিবার পরিজন নিয়ে কৃষিবিদদের আনন্দ চোখে পড়ার মতো। এমন আনন্দে কৃষিবিদদের জীবন ভরে উঠুক এমনটাই প্রত্যাশা করি।"

এদিকে ছেলেদের অনুর্ধ ক্লাস এইট পর্যন্ত বাস্কেট বল নিক্ষেপে নাবিদ প্রথম, ওশান দ্বিতীয় এবং অরিন তৃতীয় স্থান অধিকার করে। এরপর ছেলেদের ক্লাস এইট ও তদুর্ধ বাস্কেট বল নিক্ষেপে শাফি প্রথম,  দ্বিতীয় এবং সামি তৃতীয় স্থান অধিকার করে।

কেআইবি কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব প্রিন্স বলেন,"প্রথম বারের মত মহাসচিবের দায়িত্ব পাবার পর এরকম পিকনিক সফলভাবে সম্পন্ন করতে পেরে তিনি সত্যিই আনন্দিত।"আগামীতে আরো বড় পরিসরে সকলের সহযোগিতায় পিকনিক আয়োজনের আশা করেন তিনি।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশের সাবেক সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কৃষিবিদ জনাব আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম এমপি পিকনিকস্থলে পৌঁছালে এক আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। এসময় কৃষিবিদগণ সাবেক সভাপতিকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান। তিনি অনুষ্ঠানে স্বপরিবারে উপস্থিত থাকতে পেরে খুবই আনন্দ প্রকাশ করেন এবং আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান। পরে তিনি বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

কেআইবি'র সাবেক মহাসচিব কৃষিবিদ জনাব মোহাম্মদ মোবারক আলী পুরো সময় জুড়ে নবীন-প্রবীন কৃষিবিদদের নিয়ে আনন্দ উপভোগ করেন এবং এমন সুন্দর একটি আয়োজনের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জানান।

কেআইবি কেন্দ্রীয় সভাপতি সভাপতি জনাব এ এম এম সালেহ বলেন, "সবার অংশগ্রহনে পিকনিক বেশ উপভোগ্য হয়েছে। আগামীতেও এভাবে করতে চাই।" কেআইবি মেট্রোপলিটন সভাপতি কৃষিবিদ লিয়াকত আলী জুয়েল বলেন," পিকনিকের আয়োজনে নিজেদের সম্পৃক্ত করতে পেরে গর্ব অনুভব করছি। "

কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কৃষিবিদ মঞ্জুরুল হান্নান অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন," পিকনিকে সবাইকে পেয়ে আনন্দিত এবং এমন সুন্দর একটি আয়োজনের জন্য আয়োজকদের আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

পিকনিকে অংশগ্রহনকারী শেকৃবি'র স্বপ্নীল প্রান্তরের কৃষিবিদ ওমর ফারুক মজুমদার পিকনিক'কে "ওয়ান্ডারফুল " বলে অনুভূতি ব্যক্ত করেন। বাংলাদেশ ভেটেরিনারি এসোসিয়েশন (বিভিএ) যুগ্ম-মহাসচিব ড. মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান মোল্লা বিভিন্ন ইভেন্ট পরিচালনায় ব্যস্ত সময় পার করেন এবং আগত সকল কৃষিবিদ ও তাদের পরিবারবর্গকে শুভেচ্ছা জানান। বাংলাদেশ এনিম্যাল হাজবেন্ড্রী এসোসিয়েশন (বাহা) মহাসচিব আবু সাঈদ মোঃ কামাল বাচ্চু বলেন, অনেক কৃষিবিদ ও তাদের পরিবার পরিজনদের নিয়ে একসাথে হতে পেরে অত্যন্ত আনন্দিত বলে জানান।

মধ্যাহ্নভোজের পর মহিলাদের পিলো পাসিং অনুষ্ঠিত হয়। চরম উত্তেজনাকর খেলায় প্রথম হন লতিফা আক্তার, দ্বিতীয় সুরাইয়া আক্তার, তৃতীয় পারভীন আক্তার, চতুর্থ জান্নাতুল ফেরদৌস ও পঞ্চম স্থান মহুয়া ইসলাম অর্জন করেন।

পিকনিকের মাঝে ছিল সাস্কৃতিক অনুষ্ঠন, হাউজি সহ অনেক আয়োজন এবং এটি পরিচালনা করেন কৃষিবিদ জনাব হেমায়েৎ হুসেন তাকে সহযোগিতা করেন কৃষিবিদ জনাব মাহাবুবুল হক মনু, দীপক কুমার বনিক (দিপু) প্রমুখ। সর্বশেষ আকর্ষণ ছিল র‌্যাফেল ড্র এতে প্রথম পুরস্কার পান কৃষিবিদ ড.সামিউল আলম লিটন।

বছরের একটি দিনে সকল কৃষিবিদ বনভোজনের মাধ্যমে এমন আনন্দে শরিক হবেন এমনটাই আশা করেন অংশগ্রহনকারীর কৃষিবিদ ও তাদের পরিবার- পরিজনরা।সবার মাঝে এদিনটি বারে বারে ঘুরে আসুক এটি প্রত্যাশা সকলের।