Friday, 15 December 2017

 

অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী কৃষিবিদদের সম্মাননায় সিক্ত হলেন দেশের দু’জন গুণী কৃষিবিদ

এগ্রিলাইফ২৪ ডটকম:অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়েরর ৪৩ তম ব্যাচের কৃষিবিদরা তাদের দুই সহপাঠীকে সামাজিক ও বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে অনন্য অবদানের জন্য তাদের ব্যাচের পক্ষ থেকে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করেছে। এ দুইজন কৃতি কৃষিবিদ হলেন ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ার গ্রুপ এবং ওয়ান ফার্মা লিমিটেড এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর কৃষিবিদ কেএসএম মোস্তাফিজুর রহমান এবং মাইক্রো-ফাইবার গ্রুপের পরিচালক (ফিন্যান্স) কৃষিবিদ ডক্টর কামরুজ্জামান কায়সার।

সম্প্রতি অষ্ট্রেলিয়ার সিডনীতে অনুষ্ঠিত এক get together অনুষ্ঠানে ৪৩ তম ব্যাচের কৃষিবিদরা কৃষিবিদ কায়সারের নিকট এ সম্মাননা ক্রেষ্ট প্রদান করেন। এছাড়া SAU Alumni Association in Australia-র আয়োজক কমিটি তাদের জন্য সন্মাননা স্বরুপ কিছু উপহার প্রদান করে। এর আগে প্রতিবছরের ন্যায় এবারও এ দুই কৃষিবিদ SAU Alumni get together-কে আরো বর্ণীল করার লক্ষে অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী কৃষিবিদদের জন্য ঢাকা হতে শুভেচ্ছা উপহার প্রেরণ করেন ।

৩০ এপ্রিল রবিবার সন্ধ্যায় ন্যাশনাল এগ্রিকেয়ারের হেড অফিসে কৃষিবিদ কেএসএম মোস্তাফিজুর রহমান এর হাতে তাদের পক্ষ থেকে ক্রেষ্ট ও উপহার তুলে দেন তারই সহপাঠী কৃষিবিদ ডক্টর কামরুজ্জামান কায়সার।

উল্লেখ্য বিগত ৫ বছর ধরে অষ্ট্রেলিয়া প্রবাসী কৃষিবিদদের একত্রিত করে এ ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। মূলত: শেকৃবির ইতিহাস, ঐতিহ্য ধারন করে কৃষিবিদদের বন্ধনকে আরো দৃড় করতেই এ উদ্যোগ বলে জানান সংগঠকরা।

কৃষিবিদদের মাঝে পারষ্পারিক সম্প্রীতি বজায় রাখতে এ ধরনের আয়োজন নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবী রাখে। এ প্রসঙ্গে কৃষিবিদ কায়সার বলেন প্রবাসী কৃষিবিদরা সব সময় দেশের ভালো খবরের জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকে। দেশের কৃষিবিদদের সাফল্যে তারা সব সময় আনন্দ ও গর্ববোধ করেন। সাম্প্রতিক সময়ে তার অষ্ট্রেলিয়া সফরে তিনি সেখানে বসবাসরত কৃষিবিদদের অনুভূতি সম্পর্কে এগ্রিলাইফ২৪ ডটকমকে এমনটাই জানালেন।

প্রাপ্ত সম্মাননায় অনুভূতি ব্যক্ত করে কৃষিবিদ মোস্তাফিজ বলেন সুদূর অষ্ট্রেলিয়ায় থেকেও দেশের কৃষিবিদদের জন্য তাদের সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতি সত্যিই আনন্দের ও গৌরবের। তিনি আরো বলেন স্বাধীনতার পর থেকেই দেশের ক্ষেত্রেই উন্নতি হয়েছে। তবে দেশের বিশাল জনগোষ্ঠীর খাদ্য পুষ্টি নিরাপত্তায় দেশের কৃষক ও কৃষিবিদদের অবদান ঈর্শ্বনীয়। কৃষিবিদদের সাফল্যে এ ধরনের স্বীকৃতি তাদেরকে আরো দায়ীত্বশীল করে তুলবে এবং এ ধরনের অনুপ্রেরণা তাদের কর্মক্ষেত্রের প্রতিটি ধাপে উৎসাহ যোগাবে বলে মনে করেন তিনি।

এদিকে তাদের এ সম্মাননায় কৃষিবিদ, শিক্ষক,বন্ধু-বান্ধব শুভানুধ্যায়ীসহ অনেকেই শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। অভিনন্দন বার্তায় তারা সকলেই তাদের উভয়ের সুস্বাস্থ ও দীর্ঘায়ু কামনা করেছেন। এ ধরনের স্বীকৃতি কৃষিবিদদের কাজের গতি আরো বৃদ্ধি করতে অনুপ্রেরণা জাগাবে বলে জানান তারা।