Thursday, 14 December 2017

 

রাবি সিএসটি বিভাগের নতুন সভাপতি-প্রফেসর ড. মো. সাইফুল ইসলাম

এস.এম.আল-আমিন,রাবি সংবাদদাতা: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ক্রপ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি (সিএসটি) বিভাগের নতুন সভাপতি হিসাবে আজ মঙ্গলবার থেকে ৩ বছর মেয়াদে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন কৃষি অনুষদের বর্তমান ডীন ও সিএসটি বিভাগের সিনিয়র শিক্ষক বিশিষ্ট কীটতত্ববিদ প্রফেসর ড. মো. সাইফুল ইসলাম। দায়িত্ব গ্রহনের পরপরই বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন। এ সময় সবার সুস্থতায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয় এবং উপস্থিত সবাইকে মিষ্টিমুখও করানো হয়।

 

তথ্যসূত্রে, প্রফেসর ড. ইসলাম বগুড়া জেলার ঐতিহাসিক প্রত্মতাত্ত্বিক নির্দশন মহাস্থানগড় সংবলিত শিবগঞ্জ উপজেলার বুড়িগঞ্জ ইউপির সোনাপারা গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে ১৯৬৯ সালের ১০ ফেব্রুয়ারী জন্ম গ্রহন করেন। পিতা মরহুম আব্দুল গনি মন্ডল এবং মাতা মরহুমা আফরোজা বেগমের দুই ছেলে এক মেয়ের মধ্য তিনি বড় ছেলে। বাবা ছিলেন গ্রাম্য মাতবর, সমাজসেবক এবং পেশায় স্বাস্থ্য কর্মী। বাবার পেশাগত ব্যস্ততায় চাচা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও পাঁচবারের ইউপি চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা জনাব আলতাফ হোসেন মন্ডলের তত্ত্বাবধানে কেটেছে শৈশব ও তারুন্য। এরমাঝে কৈশোর কাটে নানাবাড়ি বিহারের আরেক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে নানা মরহুম গিয়াস উদ্দিন প্রামানিক এর সাহচর্যে।

লেখাপড়া শুরু গ্রামের প্রাাথমিক বিদ্যালয়ে হলেও ষ্টার মার্ক সহ মাধ্যমিকের গন্ডি পার করেন নানাবাড়ি এলাকা বিহার এমএইচ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে। এর আগে ১৯৮০ সালে অষ্টম শ্রেনীতে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তিও পেয়েছিলেন তিনি। ছোটবেলা থেকেই লেখাপড়ায় রেখেছিলেন কৃতিত্বের স্বাক্ষর। এরই ধারাবাহিকতায় বগুড়া সরকারী আযিযুল হক কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক শেষ করে ১৯৮৮-৮৯ ব্যাচে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদে ভর্তি হন। অনার্স সম্পন্ন সহ ১৯৯৬ সালে এন্টোমলজীতে এমএস সম্পন্ন করেন।

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) তিনি ইশা খাঁ পূর্ব হলে থাকতেন এবং শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ব্যক্তি ও রাজনৈতিক আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখেছিলেন। বর্তমানেও তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিএনপি সমর্থিত শিক্ষক রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত।

শিক্ষাজীবন শেষ করেই ১৯৯৭ সালে বগুড়া পল্লী উন্নয়ন একাডেমীতে (আরডিএ) সহকারি পরিচালক পদে কর্মজীবন শুরু করেন। ৬মাস আরডিএতে চাকুরি করার পর ১৯৯৭ তেই শিক্ষক হিসাবে যোগদেন রাজশাহী কৃষি কলেজে। এরপর ২০০১ সালের ১৮ জুলাই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদান করেন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রানিবিদ্যা বিভাগ থেকে ২০০৫ সালে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন। এরপর ফেলোশিপে চায়না হুয়াজং কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০০৯ সালে পোষ্ট ডক্টরেট ডিগ্রি সম্পন্ন করেন। এছাড়াও তার দেশী-বিদেশী জার্নালে ৩০টির অধিক প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে, যা আন্তর্জাতিক মহলে সমাদৃত ও প্রশংসিত। এছাড়াও প্রফেসর ড. ইসলাম কৃষি গবেষনা ও সমসাময়িক বিজ্ঞান নির্ভর একটি দ্বি-মাসিক ম্যাগাজিন এর সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি। যা দ্রুতই প্রকাশ পেতে যাচ্ছে।

এর আগে প্রফেসর ড. সাইফুল ইসলাম ১৯৯২ সালের ১১ মে পারিবারিক সম্মতিতে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। স্ত্রী জান্নাতোন আশরাফি সূচনা ব্যক্তিপরিচয়ে একজন মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, নারী উদ্যোক্তা এবং সমাজসেবায় নিজেকে যুক্ত রেখেছেন। তাদের দাম্পত্য জীবন আলো করে এসেছে দুটি ছেলে সন্তান। বড় ছেলে একাদশ ও ছোটছেলে তৃতীয় শ্রেনীতে অধ্যায়নরত।

উল্লেখ্য, গত ৪ মে দায়িত্ব গ্রহণের কথা থাকলেও রাবি ক্যাম্পাসে ভিসি শূন্যতার ফলে তিনি যোগ দান করতে পারেননি।##