Friday, 24 November 2017

 

৩য় লাইভস্টক এওয়ার্ড'২০১৭ পেলেন শেকৃবি’র ড. কে, বি, এম, সাইফুল ইসলাম

মোঃ আব্দুল্লাহ আল জাবের, শেকৃবি:শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (শেকৃবি) এর মেডিসিন এন্ড পাবলিক হেলথ বিভাগের চেয়ারম্যান ও সহযোগী অধ্যাপক ড. কে, বি, এম, সাইফুল ইসলাম বাংলাদেশে প্রাণিচিকিৎসা শিক্ষায় অনবদ্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ লাইভস্টক সোসাইটি কর্তৃক ৩য় লাইভস্টক এওয়ার্ড ২০১৭ তথা “মোস্ট ভ্যালুয়েবল পারসন অফ দ্য ইয়ার ফর লাইভস্টক ডেভেলপমেন্ট (এডুকেশন)-২০১৭” এ ভূষিত হয়েছেন।

বাংলাদেশ লাইভস্টক সোসাইটি কর্তৃক ‘সকলের জন্য আমিষ’ প্রতিপাদ্য নিয়ে ২১ অক্টোবর শনিবার রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ডা. কাইছার রহমান চৌধুরি অডিটোরিয়ামে আয়োজিত “৩য় লাইভস্টক অ্যাওয়ার্ড ও সেমিনার” এবং “লাইভস্টক ও পোল্ট্রি মেলা-২০১৭” এর প্রধান অতিথি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জনাব নারায়ন চন্দ্র চন্দ, এমপি উক্ত পুরস্কার প্রদান করেন। এবছর চারটি খাতে মোট ১৪ জনকে এ এওয়ার্ড দেয়া হয়েছে।  

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. মো. আইনুল হক, বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইন্সটিটিউটের মহাপরিচালক ড. তালুকদার নুরুন্নাহার, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর জনাব প্রফেসর ড: মোঃ আলী আকবর, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি ফ্যাকাল্টির ডিন জনাব প্রফেসর ড: প্রিয় মোহন দাস, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় এর ভেটেরিনারি এন্ড এনিম্যাল সায়েন্সেস বিভাগের চেয়ারম্যান জনাব প্রফেসর ড: এস এম কামরুজ্জামান, বাংলাদেশ ভেটেরিনারি কাউন্সিলের রেজিস্ট্রার ডা. মোঃ এমরান হোসেন খান, বাংলাদেশ ভেটেরিনারি এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ড. মোঃ বেলাল হোসেন, এসিআই, এগ্রিবিজনেস এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও ড. এফ, এইচ, আনছারী, রেনাটা লিমিটেডের এনিমেল হেলথ ডিভিসনের প্রধান জনাব মোঃ সিরাজুল হকসহ বাংলাদেশ লাইভস্টক সোসাইটির সভাপতি প্রফেসর ড. মোঃ জালাল উদ্দিন সরদার এবং সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক ড. মোঃ হেমায়েতুল ইসলাম আরিফ।

বাংলাদেশ লাইভস্টক সোসাইটি সূত্রে জানা যায়, মাদারিপুর সদর উপজেলার সন্তান ড. কে, বি, এম, সাইফুল ইসলাম আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন তরুণ বিজ্ঞানী। তিনি জাপান সরকারের মনবুকাগাকুশো বৃত্তি নিয়ে হোক্কাইডো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বায়োসিস্টেম সাস্টেইনাবিলিটি (মাইক্রোবায়োলজী)-তে ২০০৮ সালে এমএস এবং ২০১১ সালে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন।

ড. ইসলাম তাঁর অনবদ্য গবেষণার স্বীকৃতিস্বরূপ “এসএএডিসি-২০১৫ ইয়াং সায়েনটিস্ট এওয়ার্ড” অর্জন করেছেন। তিনি গত ২৭-৩০ অক্টোবর, ২০১৫ইং থাইল্যান্ডের পাতায়া সিটিতে অনুষ্ঠিত “৫ম ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন সাসটেইনেবল এনিম্যল এগ্রিকালচার ফর ডেভেলপিং কান্ট্রিজ (এসএএডিসি-২০১৫)”শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে ২ (দুইটি) গবেষনা প্রবন্ধ উপস্থাপন শেষে উক্ত এওয়ার্ড গ্রহণ করেন। এবছর এসএএডিসি-২০১৫ সম্মেলনে বিশ্বের ৪৩টি দেশের ৪৫০ জনেরও অধিক বিজ্ঞানী অংশগ্রহন করেন। অংশগ্রহনকারী বিজ্ঞানিদের মধ্য থেকে এবছর ১৪ জন তরুণ বিজ্ঞানিকে নিজ নিজ ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য বৈজ্ঞানিক অবদানের জন্য এই আন্তর্জাতিক সম্মানে ভূষিত করা হয়।

বাংলাদেশের এই তরুন গবেষক ও শিক্ষক তাঁর কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ পেয়েছেন “ভিজিটিং স্কলার” এর বিরল সম্মান। তিনি গত জুন ২০১৭ এ “ভিজিটিং স্কলার” হিসেবে ফ্রান্সের ন্যাশনাল ভেটেরিনারি স্কুল অফ প্যারিসে (এনভা) বিভিন্ন ল্যাব পরিদর্শন এবং বৈজ্ঞানিক সভায় অংশগ্রহন করেন।

প্রানি চিকিৎসা, শিক্ষা ও গবেষণার পাশাপাশি এ তরুণ বিজ্ঞানী দেশের প্রাণিচিকিৎসা ও সংশ্লিষ্ট পেশার উন্নয়নের একজন নিবেদিতপ্রাণ কর্মী। নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন প্রাণিচিকিৎসা পেশার উন্নয়নে। আন্তরিক চেষ্ঠা ও অক্লান্ত পরিশ্রমে যুক্তরাজ্যের রিলিফ ইন্টারন্যাশনাল-বাংলাদেশ শাখার সাথে যৌথ প্রয়াসে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থাপিত দেশের প্রথম ও একমাত্র জুনোটিক ডিসিসেস রিসার্চ এন্ড ইনফরমেশন সেন্টার এর পরিচালকের দায়িত্ব পালন করে চলেছেন প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই। পাশাপাশি ফ্রান্সের আর্ন্তজাতিক খ্যাতি সম্পন্ন কোম্পানী সেভা সান্তে এনিম্যালি ও বিশ্বের প্রাচীনতম ভেটেরিনারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ফ্রান্সের ন্যাশনাল ভেটেরিনারি স্কুল অফ এলফোর্ট (এনভা) এর সহযোগিতায় শেকৃবি’র মেডিসিন এন্ড পাবলিক হেলথ বিভাগের অধীনে বাংলাদেশের প্রাণিচিকিৎসকদের জন্য বাস্তবায়নাধীন “এভিয়ান ডিজিসেস ভেটেরিনারি পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ট্রেনিং প্রোগ্রাম” এর বাংলাদেশের প্রোগাম ইন চার্জ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

ড. কে, বি, এম, সাইফুল ইসলাম এর জন্ম মাদারিপুর সদর উপজেলার তরমুগুরিয়া গ্রামে। মাদারিপুর পৌরসভার হামিদ আকন্দ সড়কস্থ ‘ফুলকুটির’ নিবাসী জনাব আলাউদ্দিন আহমেদ ও সৈয়দা সামসুন্নাহার এর একমাত্র পুত্র। আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন এই তরুণ বিজ্ঞানী ব্যক্তিগত জীবনে তাঁর স্ত্রী ডাঃ সৈয়দা সিরাজ-উম-মাহমুদা একজন চিকিৎসক ও একমাত্র কন্যা সন্তান সামাইরা ওয়াইযাল।